বিয়ানীবাজার সংবাদ

বিয়ানীবাজারে ব’ন্যা পরিস্থিতির অবনতি, আশ্রয়কেন্দ্রে খাদ্য সহায়তার অ’পেক্ষায় মানুষ

জুবায়ের আহম’দঃ বিয়ানীবাজারে ব’ন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে বিভিন্ন এলাকার বাড়ি-ঘর। তাতে আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে বাড়ছে মানুষের চাপ, নতুন করে খোলা হচ্ছে আশ্রয় কেন্দ্র। তবে আশ্রয় কেন্দ্রে খাদ্য সহায়তার ক্ষেত্রে মানুষজন পড়েছেন বিপাকে। সোমবার বিকালে নদীর পানি বিপদসীমা’র ৬৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। রোববার একই সময়ে ৬৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছিলো।

ইতিমধ্যে বিয়ানীবাজার উপজে’লায় ২৭ টি সরকারি ভাবে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে কয়েক হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। সরেজমিনে সোমবার(২০ জুন) দেখা যায় বিয়ানীবাজার উপজে’লার বৈরাগীবাজার সিনিয়র মাদরাসায় নতুন করে আরও একটি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে, সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন আশপাশের শতাধিক পরিবার।

এই আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নেয়া শিফা আক্তার (৪৫) নামে একজন ভুক্তভোগী জানান, গত দুই দিন থেকে তিনি আছেন আশ্রয় কেন্দ্রে। কোনভাবে দিনের পর রাত পার করছেন তিনি পরিবারকে নিয়ে। স্ত্রী’ এবং ছোট সন্তানকে সাথে নিয়ে আসলেও বড় দুই মে’য়েকে নিজের বোনের বাড়িতে পাঠিয়েছেন।

সাহ’জান আহম’দ(৩০) নামে আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া আরেক ভুক্তভোগী জানান, কাজ নেই বিগত ১০ দিন থেকে, তার ঘরে এখন কোম’র পানি। উপায় না পেয়ে সব কিছু ছেড়ে দিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন আশ্রয় কেন্দ্রে।

তারা বলছেন, যে খাদ্য তারে সাথে এনেছিলেন তা অনেকটাই ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গেছে, আশ্রয়কেন্দ্রে যে খাদ্য সহায়তা আসছে তা নিতান্তই কম, তাই তারা খাদ্য সহায়তা বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করেন।

মুড়িয়া ইউনিয়নের কয়েকটি আশ্রয়কেন্দ্রে ঘুরে একই চিত্র দেখা যায়।

বিয়ানীবাজার উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা আশিক নুর জানান, ইতিমধ্যে বিয়ানীবাজার উপজে’লায় পানিব’ন্দি মানুষের মধ্যে নগদ সাড়ে লক্ষ টাকা এবং ৩৩ মেট্রিকটন খাদ্য সহায়তা করা হয়েছে। সরকারি ভাবে ২৭ টি আশ্রয় কেন্দ্রে খোলা হয়েছে বিভিন্ন স্কুল ও মাদরাসায়।

এদিকে, বিয়ানীবাজারে কুশিয়ারা ও সুরমায় বিভিন্ন ডাইক ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করায় বিয়ানীবাজার-সিলেট রাস্তার কয়েক জায়গা ব’ন্যার পানিতে ডুবে গেছে। অনেক জায়গায় বাস ছাড়া অন্যান্য পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। অনেকেই আশংকা করছেন এরকম করে পানি বাড়লে সোমবার রাতেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে বিয়ানীবাজার।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!