মৌলভীবাজার

শ্রীমঙ্গলে আটা-ময়দা মজুদ, ১ লাখ ৪২ হাজার টাকা জ’রিমানা

নিউজ ডেস্কঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে অ’বৈধভাবে আটা-ময়দা মজুদ রাখা ও নায্য মূল্যে বিক্রি না করার অ’প’রাধে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অ’ভিযান চালিয়েছে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষন অধিদপ্তর৷

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) উপজে’লার মৌলভীবাজার রোড, নতুন বাজার, এহসান মা’র্কেটসহ বিভিন্ন জায়গায় এই অ’ভিযান চালিয়ে ১ লাখ ৪২ হাজার টাকা জ’রিমানা করা হয়।

অ’ভিযানে অ’তিরিক্ত দামে আটা ও ময়দা বিক্রয় করা, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পণ্য বিক্রয় না করা, পাকা ক্রয় ভাউচার সংগ্রহ না করা, খুচরা ব্যবসায়ীদের পাকা ভাউচার প্রদান না করা, ওজনে কম দেওয়া, অ’তিরিক্ত দামে তেল বিক্রয় করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে মৌলভীবাজার রোডে অবস্থিত মেসার্স নিতাই চন্দ্র দেবকে ১০ হাজার টাকা, মেসার্স বিষ্ণুপদ রায়কে ৭০ হাজার টাকা, এহসান মা’র্কে’টে অবস্থিত মেসার্স লোকনাথ ভান্ডারকে ৫০ হাজার টাকা জ’রিমানা করে সেগুলো আদায় করা হয়।

এছাড়াও অ’তিরিক্ত দামে খাদ্য পণ্য বিক্রয় করায় আহাদুজ্জামান নামের এক ভোক্তার লিখিত অ’ভিযোগের প্রেক্ষিতে শ্রীমঙ্গল উপজে’লার নতুনবাজারে অবস্থিত শাহ মোস্তফা পোল্ট্রি ফার্মকে ২ হাজার টাকা এবং হাজী আব্দুল মুমিন এন্ড সন্সকে ১০ হাজার টাকা জ’রিমানা ও তা আদায় করা হয় এবং আইন অনুসারে জ’রিমানার ২৫ শতাংশ ভোক্তাকে প্রদান করা হয়৷

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের মৌলভীবাজার জে’লার সহকারী পরিচালক মো আল আমিন জানান, সকল ব্যবসায়ীকে ন্যায্য দামে এবং সঠিকভাবে পাকা ভাউচার প্রদান পূর্বক ব্যবসা করার জন্য আম’রা নির্দেশনা দিয়েছি। ন্যায্য দামে পণ্য দ্রব্য প্রাপ্তি নিশ্চত করার লক্ষে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অ’ভিযান চলমান থাকবে। আজকের অ’ভিযানে মোট ৫ টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ১ লক্ষ ৪২ হাজার টাকা জ’রিমানা ও তা আদায় করা হয়।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!