মৌলভীবাজার

কমলগঞ্জে অ’গ্নিকা’ণ্ডে ১০ লাখ টাকার ক্ষতি

টাইমস ডেস্কঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে অ’গ্নিকা’ণ্ডে সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব এখন পল্লী চিকিৎসক নুরুল ইস’লাম। রোববার (১৬ জানুয়ারি) বেলা দেড়টায় আদমপুর ইউনিয়নের নতুনবাজারে এ অ’গ্নিকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এতে ফার্মেসি, রেস্তোরা, মুদি দোকানসহ ৪টি দোকানের আসবাবপত্র, ঔষধ ও মালামাল সব মিলিয়ে প্রায় দশ লখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ভূক্তভোগী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোস্তফা কা’মাল ও ব্যবসায়ী ইলিয়াছ মিয়া, আব্দুল হকসহ কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা যায়, বেলা দুইটায় পল্লী চিকিৎসক নুরুল ইস’লাম, জইমত মিয়া, মামন মিয়া ও সালাম মিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আ’গুন লাগে।

বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ অগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে। নুরুল ইস’লাম জানান, জীবিকা নিভৃাহের একমাত্র অবলম্বন ফার্মেসির সব কিছু পুড়ে যাওয়ায় তিনি দিশেহারা।

বাজারের ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন, মফিজ মিয়া, আলম মিয়া জানান, অ’গ্নিকা’ণ্ডে অন্যান্য দোকান ছাড়াও পল্লী চিকিৎসক নুরুল ইস’লামের ফার্মেসির সব আসবাবপত্র ও মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

তারা জানান, ঘটনার সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসে বারবার ফোন দিলে কেউ রিসিভ করে নি। পরে ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে ফায়ার সার্ভিসের সাহায্য চাইলে প্রায় এক ঘন্টা পর ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ততক্ষণে এলাকাবাসীরা আ’গুণ নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল স্টেশন কমলগঞ্জের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা অজিত কুমা’র সিংহ ফোন রিসিভ না করার অ’ভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে আম’রা ঘটনাস্থলে পৌছেঁ দেখি আ’গুন নিয়ন্ত্রণে। আম’রা কিছু মালামালও আ’গুনের কবল থেকে উ’দ্ধার করেছি। তবে ফায়ার সার্ভিস সময়মতো পৌঁছালে অ’গ্নিকা’ণ্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কম হতো বলে এলাকাবাসীর ধারণা।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!