কানাইঘাট

কানাইঘাটে ইম’রান হ’ত্যা মা’মলায় দুই জনের ফাঁ’সির আদেশ

নিউজ ডেস্ক- সিলেটের কানাইঘাট উপজে’লায় বহুল আ’লোচিত দর্জি ইম’রান হোসেন হ’ত্যা মামালায় দুই আসামীর ফাঁ’সির আদেশ দিয়েছেন জে’লা ও দায়রা জজ ১ম আদলতের বিশেষ ট্রাইবুনাল ২ এর বিচারক।

উল্লেখ্য, কানাইঘাট উপজে’লার সোনাপুর গ্রামের বাসিন্দা কানাইঘাট, গোয়াইনঘাট সহ সিলেট জে’লার বিভিন্ন উপজে’লার প্রাক্তন পোস্ট মাষ্টার আবুবকর এর ছে’লে দর্জি ব্যাবসায়ি ইম’রান হোসেন। ২০১৬ সালের ১৯সেপ্টেম্বর রাতে কানাইঘাট উপজে’লার দুর্গাপুর দক্ষিন নয়াগ্রামের সৌদি প্রবাসি বদরুল ইস’লামের স্ত্রী’ সুহাদা বেগম ও তার নিকটাত্বীয় পর’কিয়া প্রে’মিক লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির উম’র আলীর ছে’লে জাহাঙ্গীর ও সুহাদা বেগম এর ছোট ভাই এম’রান আহম’দ সুহাদা বেগম এর দেবর মাসুম আহম’দ, ব্যাবসায়ি ইম’রান আহম’দকে হ’ত্যা করে সুহাদা বেগম এর স্বামীর বাড়ির পুকুরে লা’শ গু’ম করে রাখে।

পরবর্তীতে ইম’রান আহম’দের বাবার অ’ভিযোগের পর পু’লিশ তল্লা’শি চালিয়ে লা’শ উ’দ্ধার করে। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর আজ বুধবার দুপর ১টায় সিলেট জে’লা ও দায়রা জজ আ’দালতের বিশেষ ট্রাইবুনাল-২ এর বিজ্ঞ বিচারক এ হ’ত্যাকা’ন্ডের মূল পরিকল্পনাকারী সুহাদা বেগম ও তার পর’কিয়া প্রে’মিক জাহাঙ্গীর আহম’দকে ফাঁ’সির আদেশ প্রদান করেন। অ’পর দুই আ’সামি এম’রান আহম’দ ও মাছুম আহম’দকে বেকসুর খালাস ঘোসনা করেন। এ রায়ে নি’হত ইম’রান হোসেনের বাবা আবুবকর কিছুটা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেনস।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!