বিশ্বনাথসিলেট

বিশ্বনাথের মেয়র মুহিবের বিরুদ্ধে সাইবার আইনে আ.লীগ নেতার মামলা

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি: সিলেটের বিশ্বনাথের পৌর মেয়র মুহিবুর রহমানের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মো. নুরুল হক। তিনি পৌর এলাকার জানাইয়া (দক্ষিণ মশুল্লা) গ্রামের হাজী আব্দুল আলীর ছেলে। বুধবার সকালে সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনালে এ মামলা দায়ের করা হয় (মামলা নং-১৬০)।

মামলায় একমাত্র অভিযুক্ত করা হয় বিশ্বনাথ পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমান। তিনি উপজেলার জগদীশপুর গ্রামের মৃত কলমদর আলীর ছেলে। এছাড়াও মামলায় আরও ২/৩জন অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। মামলাটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেয়ার জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন আদালত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবি আজিজুর রহমান সুমন।

মামলার এজহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম নুনু মিয়া আ’লীগের রাজনীতিতে সিলেট জেলা তথা সারাদেশে একটি পরিচিত মুখ। তিনি ২০১৯ সালে বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগ থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে বিপুল ভোটের মাধ্যমে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর থেকে এসএম নুনু মিয়া উপজেলার নানাবিধ উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করিয়া আসিতেছেন। তার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে অভিযুক্ত মুহিবুর রহমান বিভিন্ন জায়গায় এসএম নুনু মিয়ার বিরুদ্ধে নানাবিধ কুৎসা রটনা করে আসছে।

এরই ধারাবহিকতা আসামি মুহিবুর রহমান এসএম নুনু মিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা নীতিভ্রষ্ট অসৎ উদ্দেশ্যে মানহানীকর বক্তব্য তার ফেসবুক আইডিতে প্রদান করিয়াছেন। এছাড়াও আসামি মুহিবুর রহমান রাষ্ট্রের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মানহানীকর বক্তব্যের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হচ্ছে এবং উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য এসএম নুনু মিয়ার সম্মানহানী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে।

এবিষয়ে মেয়র মুহিবুর রহমান বলেন, নুনু মিয়ার টিউবওয়েল বাণিজ্যের সাথে ভাগাভাগিতে জড়িত মামলার বাদী। আর আমি জনগণের পক্ষ নিয়েছি বলে মামলা হয়েছে। মামলা হোক, জনগণের কল্যাণে কাজ করতে গিয়ে হাজারটা মামলার আসামী হতে রাজি আছি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!