খেলাধুলা

বাংলাদেশের ম্যাচ দেখলেন ক্যান্সারে আ’ক্রান্ত আ’ফগা’ন বৃদ্ধা

নিউজ ডেস্ক- কেমোথেরাপি নেওয়ার পর ক্যান্সারে আ’ক্রান্ত রোগী শারীরিক ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন। বেশ খানিকটা সময় বিশ্রামের পর স্বাভাবিক হন।

আর এমন পরিস্থিতিকে জয় করে বাংলাদেশ-আ’ফগা’নিস্তানের ক্রিকেট ম্যাচ দেখেন ক্যান্সারে আ’ক্রান্ত এক রোগী।

গত ৩০ আগস্ট এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-আ’ফগা’নিস্তান।

এদিন সকালে দুবাইয়ের একটি হাসপাতা’লে কেমোথেরাপি নেন আ’ফগা’নিস্তানের বাসিন্দা গুলপারি শাফি। দেশটির আজমান শহরে বাস করা এই বৃদ্ধা ভুগছেন ম’রণব্যাধি ক্যান্সারে। বয়স এখন তার ৭৫।

কিন্তু এই বয়সেও ক্রিকেট খেলা দেখেন। নিজ দেশের ক্রিকেটারদের পাঁড়ভক্ত তিনি।

সেদিন দুবাইয়ের হাসপাতা’লে যখন কেমোথেরাপি নিতে এলেন গুলপারি, তখন শারজায় বাংলাদেশ-আ’ফগা’নিস্তান ম্যাচের প্রস্তুতি চলছিল।

এত কাছাকাছি এসে কি ম্যাচটি মিস করবেন তিনি? থেরাপি শেষে শারীরিক অক্ষমতা, ক্লান্তি, অ’সুস্থতা সব ভুলে ছে’লে খাইবারকে গুলপারি বলে উঠলেন, ‘চল, খেলা দেখে আসি।’

মায়ের ইচ্ছে পূরণ করতে দ্রুতই গাড়ি বের করেন খাইবার। চলে আসেন শারজায়। অ’সুস্থ মায়ের যাতে ক’ষ্ট না হয় তাই অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে জোগাড় করেন ভিআইপি বক্সের টিকিট।

হুইলচেয়ারে বসে গোটা ম্যাচ দেখেন গুলপারি শাফি। খেলার শুরুতে আ’ফগা’নিস্তানের যখন জাতীয় সংগীত চলছিল, তখন হাতে আ’ফগা’নিস্তানের পতাকা নিয়ে চোখের জলে ভেসেছেন এই ক্রিকেটপ্রে’মী বৃদ্ধা।

বৃদ্ধাকে হতাশ করেননি আ’ফগা’নিস্তানের ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশি ব্যাটারদের একের পর এক উইকেট যখন নিচ্ছিলেন রশিদ-মুজিব, উচ্ছ্বাসে হাততালি দিচ্ছিলেন গুলপারি।

নাজিবুল্লাহ জাদরান যখন বাংলাদেশি বোলারদের বল একের পর এক সীমানা ছাড়া করছিলেন, ঠিক তখনই সীমানা পেরিয়ে গ্যালারিতে বসা এক বৃদ্ধা উল্লাসে ফেটে পড়ছিলেন।

সেদিন বাংলাদেশকে ৭ উইকে’টে হারিয়ে সুপার ফোরের জায়গা নিশ্চিত করে আ’ফগা’নিস্তান। ম্যাচ জয়ের পর খুশিতে গুলপারি শাফির মুখের চওড়া হাসি ক্যামেরাব’ন্দি করেন গণমাধ্যমকর্মীরা।

আ’ফগা’নিস্তানের সব খেলোয়াড়কেই ভালোবাসেন শাফি। তবে সবচেয়ে বেশি পছন্দ অধিনায়ক মোহাম্ম’দ নবিকে। পশতু ও খাইবার ভাষার মিশেলে গণমাধ্যমে গুলপারি বলেন, ‘নবি খুব ভালো খেলোয়াড় এবং মানুষ হিসেবেও খুব বিনয়ী। তাকে বেশ পছন্দ হয়।’

ক্যান্সার আ’ক্রান্ত স্বদেশি বৃদ্ধার স্টেডিয়ামের আগমনের বার্তা পৌঁছে যায় আ’ফগা’ন অধিনায়ক মোহাম্ম’দ নবির কাছে। ম্যাচশেষে বৃদ্ধা গুলপারির কাছে ছুটে যেতে সময় নেননি মোহাম্ম’দ নবি। হুইলচেয়ারসহ বৃদ্ধাকে নিয়ে আসেন মাঠের সবুজ গালিচায়। তাকে দেখতে দৌড়ে আসেন রশিদ-মুজিবরাও। বৃদ্ধা খুশিতে নবির কপালে চুমু খান। ক্রিকেটারদের মা’থায় হাত বুলিয়ে দোয়া করেন তিনি। নবি-রশিদ-নাজিবুল্লাহরাও এমন ভক্ত পেয়ে উচ্ছ্বসিত। গুলপারিকে ঘিরে সবাই মিলে ছবি তুলেন। সেলফিও তুলেন কেউ কেউ।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!