কানাইঘাটসিলেট

কানাইঘাটে হা’মলায় যুবক খু’ন

টাইমস ডেস্কঃ কানাইঘাটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের হা’মলায় শাহেদ আহম’দ (৩২) নামের এক যুবক খু’ন হয়েছেন। নি’হত শাহেদ আহম’দ কানাইঘাট উপজে’লার ঝিংগাবাড়ি ইউনিয়নের আগতালুক গ্রামের নূর ইস’লামের ছে’লে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত পৌনে নয়টার দিকে কানাইঘাটের আগতালুক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হা’মলায় শাহেদ আহম’দের তিন ভাই ও চাচাতো আরেক ভাই আ’হত হয়েছেন। আ’হত ব্যক্তিদের সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পু’লিশ সূত্রে জানা গেছে, কানাইঘাটের আগতালুক গ্রামের জসিম মোল্লা ও হারুন আহম’দের গোষ্ঠীর মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ ছিল। উভ’য় পক্ষের মধ্যে একাধিকবার পাল্টাপাল্টি হা’মলা ও সং’ঘর্ষের ঘটনা এবং একাধিক মা’মলা-মোকদ্দমা’র ঘটনা রয়েছে। প্রায় ৫ মাস আগেও দুই গোষ্ঠীর মধ্যে উত্তে’জনা দেখা দিলে পু’লিশ আ’দালতের মাধ্যমে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটাবেন না ম’র্মে দুই পক্ষের ১০ জন করে ২০ জনের মুচলেকা নিয়েছিল।

বৃহস্পতিবার রাতে পূর্ববিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের লোকজন শাহেদ আহম’দকে একা পেয়ে বাড়ির পাশে মা’রধর করেন। এ সময় শাহেদ আহম’দের পরিবারের সদস্যরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরও মা’রধর করে হা’মলাকারীরা পালিয়ে যান। পরে শাহেদকে গুরুতর আ’হত অবস্থায় উ’দ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

কানাইঘাট থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) তাজুল ইস’লাম বলেন, গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে বৃহস্পতিবার রাতে হা’মলার ঘটনা ঘটেছে। এতে শাহেদ আহম’দ নামের এক যুবক মা’রা গেছেন। তাঁর ম’রদেহ সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ম’র্গে রাখা হয়েছে। সেখানে ময়নাত’দন্তের প্রস্তুতি চলছে।

ওসি তাজুল ইস’লাম আরও বলেন, এ ঘটনায় নি’হত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো অ’ভিযোগ করা হয়নি। পু’লিশ এ ঘটনার সঙ্গে জ’ড়িত ব্যক্তিদের গ্রে’প্তার করতে অ’ভিযান চালাচ্ছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!