জাতীয়

মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত জাহাঙ্গীর আলম

মুক্তিযু’দ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত গাজীপুরের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে প্রেস ব্রিফিংয়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইস’লাম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বি’রুদ্ধে বেশকিছু অ’ভিযোগ মন্ত্রণালয়ে দাখিল হয়েছিল। সেগুলোকে পর্যালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে ত’দন্তের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে। যেহেতু আইন অনুযায়ী কোনো নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি বিশেষ করে মেয়রের বি’রুদ্ধে যদি কোনো অ’ভিযোগ আসে এবং তা যদি ত’দন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তির জন্য আমলে নেওয়া হয় তাহলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সে কারণে মেয়র জাহাঙ্গীরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।’

‘স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯’ এর ১২ (১) ধারা অনুযায়ী, জাহাঙ্গীর আলমকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।

মেয়র জাহাঙ্গীরের বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগগুলো কি জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘বিভিন্ন ধরনের অ’ভিযোগ আছে। বেশ কয়েকটি অ’ভিযোগ আছে। সেসব যেহেতু ত’দন্ত হবে তখন আপনারা জানতে পারবেন। অ’ভিযোগ যেমন কোথাও অ’বৈধভাবে জায়গা দখল করা, জনগণের স্বার্থপরিপন্থি কাজ করা। কেউ কেউ অ’ভিযোগ করেছেন, সেখানে অনেক অবকাঠামো ক্ষতিপূরণ না দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে, জো’র-জবরদস্তি করা, এ ধরনের কিছু অ’ভিযোগ এসেছে।’

স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তির কোনো অ’ভিযোগ এসেছে কি না জানতে চাইলে তাজুল ইস’লাম বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বাংলাদেশের কোনো নাগরিক সে যেই হোক না কেন, কথা বলা অ’ত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ও ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরণ। এটাকে একজন নাগরিক হিসেবে আমি ঘৃ’ণা করি। স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে যিনি বাংলাদেশকে স্বীকার করেন, তাহলে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা না করার কোনো কারণ নেই। যারা বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা করবেন না, সে তো বাংলাদেশকেই স্বীকার করে না। সেই কারণে আম’রা সবাই জানি, আপনারাও জানেন, সেই অ’ভিযোগটা দলের কাছে দিয়েছে এবং দলের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’

‘আইন অনুযায়ী আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হয়। মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ প্রতিষ্ঠান সিটি করপোরেশনসহ অন্যান্য স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান আছে। সেই প্রতিষ্ঠানে দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি দায়িত্বপালনে যদি গর্হিত কাজ করে সেসব ক্ষেত্রে আইন অনুযায়ী তাদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা আমাদের দেওয়া আছে। সেই ক্ষমতাই আম’রা প্রয়োগ করছি। আইনে আমাদের যেসব অ’পশন দেওয়া আছে সে অনুযায়ী তার বি’রুদ্ধে আম’রা ব্যবস্থা নিয়েছি।’

গাজীপুরে তিন সদস্যের মেয়র প্যানেল গঠন করা হয়েছে জানিয়ে তাজুল ইস’লাম বলেন, ‘যিনি জ্যেষ্ঠতার বিচারে এক নম্বরে আছেন, তিনি মেয়র হিসেবে দায়িত্বপালন করবেন। তাকেই দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে।’

ত’দন্ত শেষ হবে কবে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আম’রা আমলে নিয়েছি। এখন ত’দন্ত শুরু হবে অনতিবিলম্বে। ত’দন্ত করতে মাঠপর্যায়ে কতদিন লাগবে সেটা এখনই বলা যাবে না। হয়তো বেশি সময় লাগতে পারে। আরও নতুন বিষয়ও যোগ হতে পারে।’

জাহাঙ্গীর আলম আত্মপক্ষ সম’র্থনের সুযোগ পাবেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তার বি’রুদ্ধে যে চার্জগুলো গঠন করা হবে, আম’রা ত’দন্ত করে যেগুলো পাবো, সেসব বিষয়ে তাকে শোকজ করা হবে। প্রত্যেক নাগরিকের আত্মপক্ষ সম’র্থনের সাংবিধানিকভাবে অধিকার আছে। সেই অধিকার তিনিও ভোগ করতে পারবেন।’

মন্ত্রণালয়ের অ’তিরিক্ত সচিব মু’স্তাকিম বিল্লাহ ফারুকী’র নেতৃত্বে তিন সদস্যের ত’দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘তার বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে অ’পসারণ করা হবে।’

‘আজ আম’রা বহিষ্কারাদেশ জারি করছি। পত্রপ্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে নতুন ভা’রপ্রাপ্ত মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এর মধ্যেই ক্ষমতা হস্তান্তরের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে’ বলেন তাজুল ইস’লাম।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!