সিলেট

সিলেটে পর’কী’য়ার জেরে হ’ত্যা: নারীসহ দুজনের মৃ’ত্যুদ’ণ্ড

নিউজ ডেস্ক- সিলেটের কানাইঘাটে পর’কী’য়া স’ম্পর্কের জেরে দরজি ইম’রান হোসেন (২৫) হ’ত্যা মা’মলায় নারীসহ দুজনের মৃ’ত্যুদ’ণ্ড দিয়েছেন আ’দালত। সেই সঙ্গে উভ’য়কে এক লাখ টাকা জ’রিমানা, অনাদায়ে তিন বছরের বিনাশ্রম কারাদ’ণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। মা’মলার অ’পর দুই আ’সামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার বেলা দুইটার দিকে সিলেটের অ’তিরিক্ত দায়রা জজ প্রথম আ’দালতের বিচারক মো. ইব্রাহিম মিয়া এ আদেশ দেন।

জে’লা জজ আ’দালতের অ’তিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রঞ্জিত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রায় ঘোষণার সময় আ’সামিরা আ’দালতে উপস্থিত ছিলেন না। মা’মলায় ২৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে।

মৃ’ত্যুদ’ণ্ডপ্রাপ্ত দুজন হলেন সুহাদা বেগম (২৫) ও জাহাঙ্গীর আলম (২৬)। সুহাদা বেগম কানাইঘাট উপজে’লার দুর্গাপুর দক্ষিণ নয়াগ্রামের সৌদিপ্রবাসী বদরুল ইস’লামের স্ত্রী’ এবং জাহাঙ্গীর আলম তার প্রতিবেশী এবং নিকটাত্মীয়। মা’মলায় খালাস পেয়েছেন সুহাদার ভাই ইম’রান আহম’দ (২৯) ও দেবর মাসুম আহম’দ (৩৪)।

২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। তিনি কানাইঘাট পৌর শহরে চয়েস টেইলার্স নামের একটি দোকানের মালিক ছিলেন।

আ’দালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। তিনি কানাইঘাট পৌর শহরের সোনাপুর এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। পৌর শহরে চয়েস টেইলার্স নামের একটি দোকানের মালিক ছিলেন তিনি। তাকে কথিত প্রে’মিকা সুহাদার শ্বশুরবাড়িতে দাওয়াত দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এরপর থেকে নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। নি’খোঁজের দুই দিন পরও তার কোনো সন্ধান না পেয়ে ইম’রান আহম’দের বাবা আবু বক্কর কানাইঘাট থা’নায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে ২৩ সেপ্টেম্বর সকালে কানাইঘাট থা’নায় তিনি সুহাদা বেগম ও তাঁর ভাই ইম’রান আহম’দ, দেবর মাসুম আহম’দ ও লক্ষ্মীপ্রসাদ গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের বি’রুদ্ধে মা’মলা করেন।

মা’মলার পরপরই পু’লিশ সুহাদা বেগম ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রে’প্তার করে। পরবর্তী সময়ে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে সুহাদার শ্বশুরবাড়ির পুকুর থেকে ইম’রান হোসেনের লা’শ উ’দ্ধার করা হয়। পরে ২৫ সেপ্টেম্বর আ’দালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেন সুহাদা বেগম। দীর্ঘ ত’দন্ত শেষে মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা আ’দালতে চারজনকে অ’ভিযু’ক্ত করে অ’ভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে আ’দালতের বিচারক সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে আজ রায় ঘোষণা করেন।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!