হবিগঞ্জ

সিলেটে বন্ধুকে নিয়ে প্রে’মিকাকে ধ’র্ষণ, গ্রে’প্তার ২

নিউজ ডেস্ক- বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে সিলেটের একটি আবাসিক হোটেলে প্রে’মিকাকে রাতভর পালাক্রমে ধ’র্ষণ করে প্রে’মিক। এই ঘটনায় হবিগঞ্জ জে’লার বাহুবল মডেল থা’না পু’লিশ প্রে’মিকসহ ওই বন্ধুকে গ্রে’প্তার করেছে।

গ্রে’প্তারকৃতরা হলেন – হবিগঞ্জ জে’লার নবীগঞ্জ উপজে’লার ববকান্দি গ্রামের মৃ’ত হুদ খাঁর ছে’লে জুয়েল খাঁ (২২) ও তার বন্ধু বরগাঁও গাজী মোকা’মের মৃ’ত আহম্ম’দ মিয়ার ছে’লে জুনেদ মিয়া (২৬)।

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) দিবাগত রাতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন বাহুবল মডেল থা’নার ইন্সপেক্টর (ত’দন্ত) আলমগীর কবির। এর আগে পু’লিশের একটি দল অ’ভিযান চালিয়ে শুক্রবার সকালে ওই দুইজনকে নবীগঞ্জের বরগাঁও এলাকা থেকে গ্রে’প্তার করে।

পু’লিশি জেরায় প্রে’মিক জুয়েল খাঁ জানায় -মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ওই কি’শোরীর সাথে তার প্রে’মের স’ম্পর্ক গড়ে উঠে। জুয়েল প্রে’মিকাকে তার সাথে দেখা করতে সিলেট শহরে আসতে বলে। এতে রাজি হয় প্রে’মিকাও। ৬ অক্টোবর বিকেলের দিকে জুয়েল একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় করে পানিউম’দা নিয়ে আসে। এরপর সেখান থেকে বাসে করে তারা সিলেট পৌঁছায়।

সিলেট কদমতলী থেকে জুয়েল ও তার বন্ধু জুনেদ মিলে সিলেট শহরের তালতলা আবাসিক হোটেল সুফিয়ার দ্বিতীয় তলার একটি রুমে নিয়ে কি’শোরীকে রাতভর পালাক্রমে ধ’র্ষণ করে। পরদিন ৭ অক্টোবর সকালে তাকে (কি’শোরী) বাসে উঠিয়ে দুপুরে নবীগঞ্জের পানিউম’দায় নামিয়ে দিয়ে জুনেদ মিয়া সট’কে পড়ে।

পরে বিষয়টি স্বজনদের জানায় ওই কি’শোরী। স্বজনরা বিষয়টি বাহুবল মডেল থা’না পু’লিশকে জানান। পু’লিশের তাৎক্ষণিক তৎপরতায় আ’সামিদের গ্রে’প্তার করা হয়। ধ’র্ষণের শিকার কি’শোরী হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ইন্সপেক্টর (ত’দন্ত) আলমগীর কবির জানান, আ’সামি গ্রে’প্তারে তথ্যপ্রযু’ক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। সিএনজি চালককে পু’লিশ গ্রে’প্তার করতে অ’ভিযান অব্যাহত রেখেছে। এ ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!