হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জে গায়ে হলুদের দিন কনের মৃ’ত্যু, বিয়ের গেইট দিয়ে বের হলো লা’শ

‘বিবাহ হচ্ছে ভাগ্য পরীক্ষা’ স্যামুয়েল স্মাইলস-এর উক্তিটির মুখোমুখি হতে হয়নি মাধবপুরের সুইটি আক্তার নামে এক তরুণীকে। বিবাহ নামক ওই ভাগ্য পরীক্ষার আগেই গায়ে হলুদের দিন জ্বর, ঠান্ডা ও গলা ব্যথা নিয়ে পরপারে চলে যেত হল তাকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় শেষ নিশ্বা’স ত্যাগ করে সে। সুইটি মাধবপুর উপজে’লার বাড়াচান্দুরা গ্রামের মোঃ রশিদ মিয়ার কন্যা এবং মাধবপুর দরগাবাড়ি আলিয়া মাদরাসার দশম শ্রেণীর ছা’ত্রী ছিল বলে জানা গেছে। এদিকে, গায়ে হলুদের দিন সুইটির এমন মৃ’ত্যু মেনে নিতে পারছে না স্বজনসহ এলাকাবাসি।

জানা যায়, সুইটি আক্তার নামে ওই তরুণী বেশ কিছুদিন যাবত জ্বর ঠান্ডা ও গলা ব্যথা নিয়ে ভূগছিল। এর মধ্যে তার বিয়ে ঠিক করা হয় বি-বাড়িয়া জে’লার সরাইল উপজে’লার শাহ’জাদপুর গ্রামের মোঃ শহীদ মিয়ার পুত্র স্বপন মিয়ার সাথে। আজ (১১ জুন শুক্রবার)

বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার ছিল তার গায়ে হলুদ। গায়ে হলুদের আগের দিন সে অ’সুস্থতাবোধ করলে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় মা-মনি ক্লিনিকে। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে নেয়া হয় তিতাস হসপিটালে। সেখা তার অবস্থা সংকটাপন্ন হলে পাঠানো হয় বি-বাড়িয়া জে’লা সদর হাসপাতা’লে। এক পর্যায়ে তাকে ঢাকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন সেখানকার চিকিৎসকরা। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেয়ার পথে সরাইল এলাকায় যাওয়ার পর মৃ’ত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সে। পরে তার ম’রদেহ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। বাদ আছর ম’রহু’মা’র জানাজার নামাজ শেষে তাকে দাফন করা হয়।

স্থানীয়রা বলছেন, সুইটির বিয়ে উপলক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছিল। গেইটসহ বিয়ে বাড়িতে করা হয়েছিল আলোকসজ্জা। কিন্তু সেই আলোকসজ্জা এখন বিষাধে পরিণত হয়েছে। যেই গেইট দিয়ে তার শ্বশুর বাড়ি যাওয়া কথা ছিল সেই গেইট দিয়ে তার লা’শ বের হয়েছে। এমন ম’র্মা’ন্তিক ঘটনায় স্বজনসহ পুরো এলাকায় নেমে এসছে শোকের ছায়া।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!