কানাইঘাট

সিলেটে ন্যায় সঙ্গত কথা বলায় আলেমকে কু’পিয়ে গুরুতর জ’খম

নিউজ ডেস্ক- কানাইঘাট ৭নং দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের লামা’রতালুক গ্রামে গত সোমবার একটি সালিশ বিচারের ন্যায় সঙ্গত কথা বলার কারণে টাইটেল পাশ আলেম ফয়ছল আহম’দ (৩০)কে ধারালো অ’স্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কু’পিয়ে গুরুতর আ’হতের খবর পাওয়া গেছে।

গুরুতর আ’হত অবস্থায় মা’ওলানা ফয়ছল আহম’দকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে অর্থপেডিক্স বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকার জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, অনুমান দেড় মাস পূর্বে লামা’রতালুক গ্রামের আব্দুল মুছব্বিরের ছে’লে নছির উদ্দিন ওরফে কনাই (১৫) এবং একই গ্রামের মৃ’ত আব্দুল হান্নানের ছে’লে সুহেল আহম’দ (১৪) এর মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এই দুই কি’শোরের হাতাহাতির ঘটনা নিয়ে সে সময় উভ’য় পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তে’জনা ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি সামাজিকভাবে নিষ্পত্তি করার জন্য এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উদ্যোগ নেন।

সোমবার বিকেল ৪টার দিকে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য লামা’রতালুক জামে ম’সজিদ প্রাঙ্গণে বৈঠক বসে। এতে গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে স্থানীয় সীমা’রবাজারে কাপড় ব্যবসায়ী লামা’রতালুক গ্রামের হাজী আব্দুস সালামের ছে’লে মা’ওলানা ফয়ছল আহম’দ ন্যায় সঙ্গত কথা বলার কারণে সুহেল আহম’দের পক্ষের লোকজন সালিশ শেষে তার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। একপর্যায়ে সুহেলের চাচা ছালিক আহম’দ (৩৫), ইব্রাহিম (৩০), চান মিয়া (২৫), শাকিল আহম’দ (২৫), শহিদ আহম’দ (২০), ইম’রান আহম’দ (২১) ও চাচাতো ভাই ফয়ছল আহম’দ (২০) এবং সুহেল আহম’দ ধারালো ডেগার, দা, চায়নিজ কোড়াল, হাতুড়ি, লোহার রড ইত্যাদি দেশীয় অ’স্ত্রশস্ত্র নিয়ে মা’ওলানা ফয়ছল আহম’দের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।

এসময় হা’মলাকারীরা মা’ওলানা ফয়সল আহম’দের বাম পায়ের হাটুতে ও হাটুর নিচে ধারালো অ’স্ত্র দিয়ে একাধিক কোপ দিয়ে গুরুতর আ’হত করার পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পি’টিয়ে র’ক্তাক্ত জ’খম করে বলে তার স্বজনরা জানান।

একপর্যায়ে আশপাশ থেকে লোকজন এগিয়ে এসে হামলকারীদের কবল থেকে প্রা’ণে রক্ষা করেন মা’ওলানা ফয়সল আহম’দকে। গুরুতর আ’হত অবস্থায় তাকে উ’দ্ধার করে স্বজনরা দ্রুত সিওমেক হাসপাতা’লে তাকে নিয়ে যান এবং সেখানে ভর্তি করেন। তার শারীরিক অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় আ’হতের পরিবারের পক্ষ থেকে কানাইঘাট থা’নায় মা’মলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!