সিলেটের সেই ভু'য়া লন্ডনী কন্যা জাতীয় পার্টির সুন্দরী নেত্রী শিউলী সুনামগঞ্জে গ্রে'ফতার

টাইমস ডেস্কঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থা'না পু'লিশের অ'ভিযানে ভূয়া লন্ডনি কন্যা সহ প্রতারক চক্রের ৩ নারী সদস্যকে গ্রে'ফতার করা হয়েছে। গ্রে'ফতারকৃত ভূয়া লন্ডনি কন্যা সিলেট মহানগর জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতি শিউলি বেগম ওরফে দিলসানা বেগম ওরফে ইয়াছমিন (৩৪)।

তিনি বিশ্ননাথ থা'নার কোনারাই গ্রামের তৌহিদ উল্লাহ ওরফে আবদুল মতিন চৌধুরীর মে'য়ে। এছাড়া প্রতারক চক্রের অন্য সদস্যরা হলেন ছাতক উপজে'লার দোহালিয়া গ্রামের কাচা মিয়ার মে'য়ে সুমনা আক্তার (১৯) ও নবীগঞ্জ থা'নার গোলডুবা গ্রামের মৃ'ত আজাদ মিয়ার মে'য়ে সীমা আক্তার (১৯)।

জানাগেছে, শিউলি বেগম ওরফে দিলসানা বেগম ওরফে ইয়াছমিন লন্ডনি কন্যা সেজে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন নাম ঠিাকানা ব্যবহার করে বিভিন্ন স্থানের ছে'লেদের লন্ডনে নেয়ার প্রলো'ভন দেখিয়ে বিয়ে ও প্রে'মের নাট'ক করে আসছেন। তাদের রয়েছে সিন্ডিকেট।

সিন্ডিকে'টের মাধ্যমে বিয়ে ও প্রে'মের নাট'ক সাজিয়ে লন্ডন পাগল ছে'লেদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার। আসলে তিনি লন্ডনি কন্যা নন। নিজের রূপ-যৌবনকে কাজে লাগিয়ে প্রতারণা বাণিজ্য করে আসছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি এ লন্ডনি কন্যাকে বিয়ে করেন জগন্নাথপুর উপজে'লার লোহারগাঁও গ্রামের কাচা মিয়ার ছে'লে আশরাফুর রহমান। কিছু দিন পর তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন লন্ডনি কন্যা বহুরূপি শিউলি বেগম।

সর্বশেষ লন্ডনি কন্যা শিউলি বেগমের আবারো বিয়ে হয় জগন্নাথপুর উপজে'লার পাইকপাড়া গ্রামের আরেক ছে'লের সাথে। খবর পেয়ে তার আগের স্বামী আশরাফুর রহমান বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থা'নায় মা'মলা দায়ের করেন।

মা'মলার প্রেক্ষিতে ৩ এপ্রিল রাতে জগন্নাথপুর থা'নার এসআই অনুজ কুমা'র দাশের নেতৃত্বে পু'লিশ দল পাইকপাড়া গ্রামে অ'ভিযান চালিয়ে গ্রামের কাম'রুল ইস'লামের বাড়ি থেকে ভূয়া লন্ডনি কন্যা ও তার ২ সহযোগি সহ ৩ নারীকে গ্রে'ফতার করেন।

গ্রে'ফতারকৃতদের ৫ এপ্রিল রোববার সুনামগঞ্জ আ'দালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।