বিয়ানীবাজারে প্রবাসী এলেন সহস্রাধিক, অনেকে বিমানবন্দর ম্যানেজ করে সিলও নেননি

সাত্তার আজাদঃ বিয়ানীবাজারে চারদিন আগে সন্তানসহ দুই প্রবাসী লন্ডন থেকে দেশে আসেন। তারা সিলেট বিমানবন্দর নেমেই প্রভাব খাটিয়ে কোনো পরীক্ষা না করেই বেরিয়ে যান। এমনকি করো'না বিষয়ে সঙ্গরোধক (কোয়ারেন্টাইন) সিলও হাতে নেননি। তারা এলাকায় এসে প্রকাশ্যে ঘুরছেন বলেও জানা গেছে। এভাবে বিয়ানীবাজারে অনেক প্রবাসী বাজার-হাট করছেন। ঘোরাঘুরি করছেন।

শুধু বিয়ানীবাজার নয়, সিলেটের সবগুলো উপজে'লায় প্রবাসী এসেই ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন। লন্ডন থেকে রোববার সিলেটে এসেছেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজে'লার ঘোড়াকালি গ্রামের আব্দুল আউয়াল। বিমানবন্দরে নামা'র পর তাকে ১৪ দিন সঙ্গরোধে থাকার নির্দেশনা দিয়ে হাতে সিল দেয়া হয়। কিন্তু সেটি মানেননি তিনি। সোমবার দুপুরে কেয়ারটেকার দুলকে সিলেট নগরীর জিন্দাবাজার এলাকার ব্যাংকে আসেন। অবশ্য ব্যাংক ম্যানেজার বিষয়টি ততক্ষণাৎ পু'লিশকে অবহিত করেন।

বিয়ানীবাজারে ১১৩২জন প্রবাসী বিভিন্ন দেশ থেকে বাড়ি ফিরেন। প্রবাসীরা বাড়িতে এসেই ১৪দিন সঙ্গরোধে থাকার নির্দেশনা রয়েছে। কিন্তু তারা অনেকেই সে নিয়ম মানছেন না। কিন্তু কথা হল তারা এভাবে প্রকাশ্যে ঘোরাঘুরি করে করুনা ছড়ালে এর দায় নেবে কে? ভালো কথা নিজের দেশে দেশে তো আসবেনই। কিন্তু আপনার অসতর্কতা, হেডমের কারণে আপনারই আত্মীয়স্বজন বা আশেপাশের প্রতিবেশিকে ঝুঁ'কির মধ্যে ফেলার অধিকার অথবা কোনো নৈতিকতা নেই। যা করার তো করে ফেলেছেন তাই সময় ঘনিয়ে দিলেও এখনই দয়া করে ঘরে ঢুকে পড়ুন। আপনি বাঁচুন আপনার পরিবার প্রতিবেশিকে বাঁ'চান।