হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জে সরকারি অফিসে মাজার স্থাপন!

হবিগঞ্জে লাখাই উপজে'লা পরিষদের ভেতরে প্রা'ণিসম্পদ কার্যালয়ে মাজার স্থাপনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ ব্যক্তির প্রাচীন ‘কবর’ রয়েছে দাবি করে সেখানে মাজার স্থাপন করেছেন স্থানীয় এক যুবক।

মাজার আকৃতির স্থাপনা তৈরি করে কয়েকটি রঙিন নিশানা টাঙিয়ে নিয়মিত মোমবাতি জ্বালিয়ে সেখানে অবস্থান করছেন ওই যুবক। অফিসের কর্মচারীরা তাকে বাধা দিলে ধারালো ছু'রি দিয়ে ভ'য় দেখাচ্ছে তাদের।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, উপজে'লা প্রশাসনকে বিষয়টি জানালেও কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ হয়নি এখনও। লাখাই উপজে'লা পরিষদের ভেতরেই প্রা'ণিসম্পদ কর্মক'র্তার কার্যালয়ে এটি।

সরকারি এ কার্যালয়ের সীমানাপ্রাচীরের ভেতরে মাজার তৈরি করে দীর্ঘদিন থেকে সেখানে অবস্থান করছেন পার্শ্ববর্তী কাটিহারা গ্রামের এক যুবক। তিনি সেখানে নিয়মিত মোমবাতি জ্বালিয়ে মাজারের বিভিন্ন কার্যক্রম পালন করছেন।

দফতরের কর্মক'র্তা-কর্মচারীরা নিষেধ করার পরও গায়ের জো'রেই এসব কাজ করে যাচ্ছেন ওই যুবক। কিন্তু দীর্ঘদিন এসব অ'পকর্ম চলতে থাকলেও প্রশাসন কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

প্রা'ণিসম্পদ কার্যালয়ের কর্মক'র্তা-কর্মচারীরা জানান, এখানে কখনো কোনো ব্যক্তির কবর ছিল না। ওই লোক মিথ্যা দাবি নিয়ে সেখানে মাজার স্থাপন করে রেখেছেন। কার্যালয়ের গেট বন্ধ করে রাখলেও দেয়াল টপকে ভেতরে ঢুকে যাচ্ছেন তিনি। তার আচরণে দাফতরিক কর্মকা'ণ্ডে ব্যাঘাত সৃস্টি হচ্ছে।

অনেক সময় প্রবেশপথ বন্ধ থাকলে ধারালো ছু'রি দিয়ে গেটে আ'ঘাত করে ছিদ্র ছিদ্র করেছেন এ যুবক। এতে নিরাপত্তাহীনতায় থাকেন দায়িত্বশীলরা। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এখানে কোনও কবর ছিল না। মাজারের নামে ভূমি দখলের চেষ্টা করছেন এ যুবক।

উপজে'লা প্রা'ণিসম্পদ কর্মক'র্তা ডা. মো. আবু হানিফ জানান, আমি এখানে নতুন এসেছি। আম'রা তাকে এখান থেকে সরাতে চাইলে সে মা'রমুখী আচরণ করে। সরকারি দফতরের ভেতর ওই যুবক জো'রপূর্বক মাজার স্থাপন করে সমস্যার সৃষ্টি করছেন। প্রবেশপথ বন্ধ রাখলেও ধারালো অ'স্ত্র দিয়ে গেটে আ'ঘাত করতে থাকেন। তিনি বলেন, আমি বিষয়টি উপজে'লা চেয়ারম্যান ও উপজে'লা নির্বাহী কর্মক'র্তাকে জানিয়েছি। উপজে'লা সমন্বয় কমিটির সভায়ও বিষয়টি অবহিত করেছি। আম'রা তার বি'রুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এ ব্যাপারে লাখাই উপজে'লা নির্বাহী কর্মক'র্তা লুসিকান্ত হাজং জানান, বিষয়টি আমাকে জানানো হয়েছে। পরিদর্শন শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লাখাই থা'নার ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা সাইদুল ইস'লাম জানান, বিষয়টি আমা'র জানা নেই। আমা'র কাছে কেউ এ ব্যাপারে কোনও অ'ভিযোগও করেননি। সরকারি দফতরে কেউ যদি এ ধরনের কাজ করে অ'ভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!