বিয়ানীবাজার সংবাদ

বিয়ানীবাজারের এই বৃদ্ধের কাছে ফোন দিয়ে নাম বললেই গলা থেকে ছুটে যায় মাছের কা'টা

আহমেদ ইফতেখার: খাওয়ার সময় প্রায়ই ভুল বশত যে কারো গলায় আ'ট'কে যায় মাছের কা'টা। এটা যতোটা না অস্বস্তিকর,তেমন ততোটাই যন্ত্র'ণাদায়ক। তবে এর আলৌকিক সমাধান আছে বিয়ানীবাজার এর নবাং গ্রামের বৃদ্ধ ওয়ারিছ আলির কাছে।গলায় মাছের কা'টা বা যেকোনো জিনিস আ'ট'কে গেলে তাকে ফোন দিয়ে নিজের নামটা বললেই কাজ হয়ে যায়। তিনি সেই নামের উপর কিছু ঝাড়ফুঁক করেন, তারপর কিছুক্ষণের মধ্যেই কা'টা আ'ক্রান্ত ব্যাক্তি যন্ত্র'ণা থেকে মুক্তি লাভ করেন।

জানা যায়, ওয়ারিছ আলি (৮০) দীর্ঘ চল্লিশ বছর থেকে নিস্বার্থে এই কাজ করে আসছেন। ঝাড়ফুঁক এর মাধ্যমে তিনি কতো মানুষের গলার কা'টা দূরিভূত করে উপকার করেছেন তার সঠিক সংখ্যা অনুমান করা যাবেনা।

তার মাধ্যমে উপকৃত হওয়া বিয়ানীবাজার উপজে'লার দাসউরা গ্রামের ছায়রা বেগম বিয়ানীবাজার টাইমসকে বলেন, কয়েক দিন আগে ভাত খাওয়ার সময় আমা'র গলায় একটি মাছের কা'টা আ'ট'কে যাওয়ায় আমা'র খুবই ক'ষ্ট হচ্ছিলো। এক পর্যায়ে আমি ওয়ারিছ আলিকে কল দিয়ে আমা'র সমস্যার কথা বলি। উনি আমা'র নাম জেনে নিয়ে কল রেখে দেন। আশ্চর্যজনক হলেও এক মিনিটের মধ্যেই আমা'র গলার কা'টাটি দূর হয়ে যায়।

ওয়ারিছ আলির ছোট মে'য়ে সাজেদা বেগমের সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তিনি বলেন, আমা'র বাবা দীর্ঘদিন থেকে মানুষের গলার কা'টা সরিয়ে সেবা করে আসছেন। তবে কিছুদিন থেকে তিনি অ'সুস্থ হয়ে বিছানায় পড়ে আছেন।

এসময় ওয়ারিছ আলীর মে'য়ে সবার কাছে নিজের বাবার জন্য দোয়া কামনা করেছেন।

Back to top button