বিয়ানীবাজার সংবাদ

দ. আফ্রিকায় দুই বাংলাদেশি হ'ত্যা : স'ন্দেহের তীর স্বদেশির দিকে

দক্ষিণ আফ্রিকার নর্থ ওয়েস্ট প্রদেশের মাফিকিং শহরের কাছে মা'রেসানি এলাকায় দুই বাংলাদেশিকে গু'লি করে হ'ত্যার পেছনে আরেক বাংলাদেশিকেই স'ন্দেহ করছেন নি'হতদের ঘনিষ্ঠজনরা। তারা বলছেন, ব্যবসা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে স্থানীয় কৃষ্ণাঙ্গ স'ন্ত্রাসীদের ভাড়া করে হ'ত্যাকা'ণ্ড ঘটানো হয়েছে।

নি'হত বাংলাদেশি দুজন হলেন- ইমন আহমেদ (৩২) ও আব্দুর রহমান (৩০)। ওই ঘটনায় গু'লিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আ'হতাবস্থায় স্থানীয় হাসপাতা'লে ভর্তি রয়েছেন রুবেল হোসেন (২৮)। রহমান ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজে'লার আমজানখোর কাশি'বাড়ীর এবং ইমন নারায়ণগঞ্জ জে'লার রূপগঞ্জ উপজে'লার বাসিন্দা। আ'হত রুবেলও রূপগঞ্জেরই বাসিন্দা।

ঘটনাটির পর থেকে বাংলাদেশিদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে। দুই খু'নের সঙ্গে স'ন্দেহভাজন অ'ভিযু'ক্তদের বিষয়ে কেউ সরাসরি তথ্য দিতে চাইছে না। বাংলাদেশিদের পক্ষ থেকে কোনো অ'ভিযোগ করা না হলেও স্থানীয় পু'লিশ এ ঘটনায় একটি মা'মলা করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বাংলাদেশি জানান, ঘটনার দিন (১৭ নভেম্বর) রাত ৯টায় হাসান নামে এক বাংলাদেশির দোকানের সামনে কয়েকজন সশস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ অবস্থান নিয়ে ফাঁকা গু'লিবর্ষণ করে। এতে আতঙ্ক সৃষ্টি হয় ওই এলাকায়।

তখন হাসান দোকানের ভেতর থেকে তার ব্যবসায়িক অংশীদার রুবেল, রহমান ও ইমনকে ফোন করে ডা'কাতির কবলে পড়ার কথা জানান এবং তাকে সহযোগিতার জন্য দ্রুত সেখানে আসতে বলেন।

কল পেয়ে রুবেল, রহমান ও ইমন গাড়ি নিয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে দোকানের সামনে আসেন। তারা গাড়ি থেকে নামতেই তিনজনকে লক্ষ্য ১৫ রাউন্ড গু'লি করে কৃষ্ণাঙ্গ যুবকরা। এতে ঘটনাস্থলেই ইমন ও রহমান মা'রা যান। আ'হত রুবেলকে হাসপাতা'লে নিয়ে যান স্থানীয়রা।

জানা যায়, যেখানে দুই বাংলাদেশি নাগরিক খু'ন হয়েছেন, সেখানে সোলায়মান নামে আরেক বাংলাদেশি নতুন করে দোকান দেয়ার চেষ্টা করে আসছিলেন। সম্প্রতি এ নিয়ে হাসান ও রুবেলের সঙ্গে সোলায়মানের হাতাহাতিও হয়।

কয়েকজন প্রবাসীর অ'ভিযোগ, ওই দ্বন্দ্বের জেরে সোলায়মান একই এলাকার জাকির আলী ও শান্ত নামের দুই বাংলাদেশির সহযোগিতায় প্রতিপক্ষকে খু'ন করতে পেশাদার খু'নি ভাড়া করে থাকতে পারেন।

সোলায়মান এবং তার দুই সহযোগীকে আইনের আওতায় নিয়ে এলে অনেক কিছুই স্পষ্ট হবে বলে ধারণা ওই প্রবাসীদের।

জানা গেছে, নর্থ ওয়েস্ট প্রদেশের মাফিকিং শহর থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে মা'রেসানি এলাকায় শক্তিশালী মাফিয়া চক্র গড়ে তুলেছেন কয়েকজন বাংলাদেশি। তারা নিরীহ প্রবাসীদের জি'ম্মি করে রেখেছেন। ওই এলাকায় এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছিল। সে সময় এক বাংলাদেশি গু'লিবিদ্ধ হয়ে দুই মাস চিকিৎসা নিয়ে রক্ষা পেলেও দোকানের ক্রেতা দুই আফ্রিকান প্রা'ণ হারান।

দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রবাসীদের সংগঠন বাংলাদেশ পরিষদের সহ-সভাপতি শফিকুল ইস'লাম বলেন, দুই বাংলাদেশি খু'নের ঘটনায় আম'রা খোঁজখবর নিচ্ছি। খু'নিদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করতে স্থানীয় পু'লিশের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!