জাতীয়

চলতি সপ্তাহে প্রাথমিকের ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বি’জ্ঞপ্তি

নিউজ ডেস্কঃ চলতি সপ্তাহে প্রাক প্রাথমিক ও প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক চেয়ে বিশাল নিয়োগ বি’জ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারে সরকার। ৩০ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে নিয়োগ দিতে সরকারি বি’জ্ঞপ্তি ইতোমধ্যেই অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ২৩ অক্টোবরের মধ্যে যেকোন দিন এটি প্রকাশ হতে পারে।

এই নিয়োগ স’ম্পর্কে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২৫ হাজার ৬৩০ জন প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষক এবং ৬ হাজার ৯৪৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। বি’জ্ঞপ্তিটি দ্রুত জাতীয় দৈনিকসহ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। এই নিয়োগে সব মিলিয়ে সাড়ে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ পেতে পারেন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই) বলেছে, নিয়োগের কাজ দ্রুত শেষ করতে তারা ওয়েবসাইট আধুনিকায়ন করেছে। এছাড়াও নিয়োগের তথ্য জানিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে তারা চিঠিও দিয়েছে।

তবে এবারের নিয়োগে অভ্যন্তরীণ কোটা থাকবে কিনা এ নিয়ে কিছুটা সংশয় রয়ে গেছে। সহকারি শিক্ষকের পদটি এ বছর ১৩তম গ্রেডে উন্নীত হলে এই প্রশ্নটি সামনে আসে। তবে নিয়োগে অভ্যন্তরীণ কোটা রাখা হবে কিনা সেটি জানতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ইতোমধ্যেই চিঠি পাঠানো হয়।

এর আগে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সরকারি সিদ্ধান্তে মুক্তিযোদ্ধা, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী, আনসার-ভিডিপি, প্রতিব’ন্ধী ও জে’লা কোটা বাতিল করেছিল। তবে নির্ধারিত ৬০ শতাংশ নারী, ২০ শতাংশ পুরুষ এবং ২০ শতাংশ পোষ্য কোটা বহাল থাকছে। এগুলোর মধ্যে আবার প্রতিটিতে ২০ শতাংশ করে বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগের কোটা অনুসরণ করা হবে।

তবেও এবারও আবেদনকারী নারী-পুরুষ উভ’য়ের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে স্নাতক (সম্মান), স্নাতক (পাস) বা সমমান ডিগ্রি করা হয়েছে। প্রার্থীর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে আবেদন প্রক্রিয়া অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে। বুয়েট ও টেলিট’ক মোবাইল কোম্পানির সহায়তায় আবেদন গ্রহণ, কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র পাঠানো, খাতা মূল্যায়ন ও ফল প্রকাশ করা হবে। এবছরের আবেদন ফি ১৭০ টাকা করা হতে পারে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ভা’রপ্রাপ্ত মহাপরিচালক সোহেল আহমেদ বলেন, আম’রা দ্রুতই নিয়োগ বি’জ্ঞপ্তি প্রকাশ করবো। অনলাইনে আবেদন করতে প্রার্থীরা এক মাস সময় পাবে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!