করো'না জয় করে কাজে ফিরেছেন মৌলভীবাজারের ৫ পু'লিশ সদস্য

নিউজ ডেস্ক- করো'না জয় করে আবারও কাজে ফিরেছেন মৌলভীবাজার পু'লিশের ৫ সদস্য। সুস্থ হওয়ার পথে আছেন আরও ২ জন।

মৌলভীবাজার জে'লা পু'লিশের সুত্রে জানা যায়, গত ১৯ এপ্রিল মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় প্রথম পু'লিশসদস্যদের মধ্যে করো'নাভাই'রাস শনাক্ত করা হয়। এর পর জে'লার কুলাউড়া, জুড়ি ও রাজনগরথা'নায় মোট ৭ জন পু'লিশ সদস্য করো'নায় আ'ক্রান্ত হন। আ'ক্রান্তদের মধ্যে ৫ জন চিকিৎসাশেষে সুস্থ হয়ে আবারও কাজে ফিরেছেন।

করো'না জয়ী এই ৫ পু'লিশ সদস্যের হচ্ছেন- কনস্টেবল মো. শাহ'জাহান মিয়া, কনস্টেবল মো. ই'মাদ হাসান, কনস্টেবল ধ্রুব জ্যোতি, কনস্টেবল মো. আফজাল হুসাইন ও কনস্টেবল মো. নুরুল ইস'লাম।
বিজ্ঞাপন

মৌলভীবাজারসদর সার্কেলের অ'তিরিক্ত পু'লিশ সুপার জিয়াউর রহমান সুস্থ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মৌলভীবাজার জে'লায় কর্ম'রত এ পর্যন্ত মোট ৭ জন পু'লিশ সদস্য করো'নায় আ'ক্রান্ত হয়েছে তার মধ্যে ৫ সদস্য সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছেন। বাকী' দুজনের একজনের প্রথম রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে দ্বিতীয় রিপোর্টের অ'পেক্ষা করছি। অ'পরজনের চিকিৎসা চলছে তবে তিনিও স্বাভাবিক আছেন। পরিবার থেকে দূরে থাকা এই পু'লিশ সদস্যরা যখন অ'সুস্থ হন তখন তাদের মনোবল ধরে রাখা বড় একটি চ্যলেঞ্জ জছিল জানিয়ে তিনি বলেন, পু'লিশ সদস্যরা পরিবার থেকে দূরে ছিল তার উপর আইসোলেশনের এতটা দিন একা থেকেছেন। পু'লিশ সুপার স্যারসহ আম'রা সবাই মিলে তাদের মানসিক শক্তি স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করেছি। করো'নার এই দুর্দিনে পু'লিশের বিশেষ কোন প্রশিক্ষণ নেই তবুও প্রতিটি পু'লিশ সদস্য দৃঢ় মনোবল নিয়ে দেশপ্রে'মের সাথে কাজ করেছে।

মৌলভীবাজারের পু'লিশ সুপার ফারুক আহমেদ জানান, করো'নার যু'দ্ধে জয়ী হতে প্রথমে দরকার মনোবল এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার। আমি ব্যক্তিগত ভাবে দুইটি জিনিষ নিশ্চিত করেছি। প্রতিদিন সময়ে সময়ে তাদের সাথে ফোনে কথা বলেছি কোন কারণ ছাড়াই। যেনো তারা বুঝতে পারে সবাই তাদের পাশে আছে। মানসিক শক্তি দিয়েছি সেই সাথে তাদের খাবার এবং চিকিৎসার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল। যতই ঝুঁ'কি থাকুক দেশপ্রে'ম বুকে রেখে বাংলাদেশ পু'লিশ কাজ করে যাবে।