কারামুক্তির ৪৮ দিন পর ফখরুলের সঙ্গে খালেদার সাক্ষাত

কারামুক্ত হয়ে গুলশানের ভাড়া বাসভবনে ওঠার ৪৮ দিন পর দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইস'লাম আলমগীরকে সাক্ষাৎ দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সোমবার (১১ মে) রাত নয়টার দিকে মির্জা ফখরুল চেয়ারপারসনের বাসভবন ফিরোজায় প্রবেশ করেন। সেখান থেকে রাত দশটা ২০ মিনিটে বেরিয়ে যান।

এর আগে, ২৫ মা'র্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) থেকে নির্বাহী আদেশে মুক্তি লাভ করেন খালেদা জিয়া। করো'নাভাই'রাসের কারণে টানা দুই সপ্তাহ হোম কোয়ারাইন্টিনে থেকে চিকিৎসা নেন তিনি। তবে চিকিৎসকদের পরাম'র্শে তিনি এখনো হোম কোয়ারাইন্টিনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন ও রোজা করছেন। এ সময়ের মধ্যে পারিবারের সদস্য ছাড়া আর কারও তার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি ছিল না। মুক্তি পাওয়ার পর দলের মহাসচিব প্রথম বারের মতো তার সঙ্গে দেখা করলেন। প্রায় সোয়া একঘণ্টা তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।

জানা যায়, দলীয় কর্মকা'ণ্ড, বাংলাদেশের করো'না পরিস্থিতি, দলের পক্ষ থেকে অসহায় নেতাকর্মী ও খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের বিষয়টি চেয়ারপারসনকে অবহিত করেন মির্জা ফখরুল। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি জানার পর করো'নাভাই'রাস মহামা'রিতে বিএনপি চেয়ারপারসন উদ্বেগ প্রকাশ করেন। দলের প্রতিটি নেতাকর্মীকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানান বিএনপি চেয়ারপারসন।

সাক্ষাৎকারের শুরুতেই খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেওয়ার পাশাপাশি দলের কর্মকা'ণ্ড স'ম্পর্কে তাকে অবহিত করেন মির্জা ফখরুল। করো'নাভাই'রাস প্রাদুর্ভাবে সারাদেশে কর্মহীন, দুস্থ মানুষের পাশে দলের নেতাকর্মীদের দাঁড়ানোর বিষয়ে তাকে জানানো হয়।

এ সময়ে দলের ভা'রপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে দেশের করো'না পরিস্থিতি, চিকিৎসা, কৃষি উৎপাদন পর্যবেক্ষণসহ দলের ত্রাণ তৎপরতা পর্যবেক্ষণ করার জন্য বিএনপি ‘জাতীয় করো'না পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সেল’ গঠনের বিষয়ে তাকে জানানো হয়। পাশাপাশি বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদককে প্রধান করে বিভাগীয় ও জে'লা পর্যায়ে কমিটি গঠন করার বিষয়েও তাকে জানানো হয়। এ ছাড়া দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাজধানীসহ সারা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কর্মহীন ও দুস্থ মানুষকে জরুরি খাদ্য সহযোগিতা প্রদানের নির্দেশনা দিয়ে দলের পক্ষ থেকে নেতাকর্মীদের চিঠি দেওয়ার বিষয় তুলে ধ'রা হয়।