‘ম'সজিদ-মন্দিরের দান বাক্সের অর্থও করো'না মোকাবিলায় ব্যবহার করা যেতে পারে’

করো'নাভাই'রাস মোকাবিলায় প্রয়োজন হলে ম'সজিদ-মন্দিরের দান বাক্স থেকে অর্থ নেয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন কপিল দেব। সম্প্রতি ভা'রতীয় দৈনিক সংবাদ প্রতিদিনে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

কপিল বলেছেন, ‘আমি আমা'র (ক্রিকেট) বোর্ডকে আবেদন করতে চাই, তোম'রা এদের (অসহায় মানুষদের) জন্য আরও কিছু করো। বোর্ডে এখন আমা'র প্রিয় ক্রিকেটাররাই সবাই। যারা এরই মধ্যে ৫ কোটি রুপি প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে দিয়েছে। আমা'র মতে, আরও অনেক টাকা বোর্ড খরচা করুক।’খরচের খাতও উল্লেখ করে দিয়েছেন কপিল, ‘হাসপাতালগুলোতে প্রয়োজনীয় মেশিন কিনে দিক। ডাক্তার-নার্সদের জন্য খরচা করুক। সৌরভ (গাঙ্গু'লি) এমনিতেই আমা'র অনেক প্রিয়। এসব উদ্যোগ যদি নেয়, আমা'র সারাজীবনের হিরো হয়ে থাকবে।’

তবে শুধু ক্রিকেট বোর্ড নয়, কপিলের দাবি সমাজের সবারই নিজের সাধ্যের পুরোটা দিয়ে সাহায্য করা। এছাড়াও মন্দির ও ম'সজিদের দানবাক্সে যেসব টাকা রয়েছে সেগুলোও এখন ব্যবহার করার সময় বলে মনে করেন কপিল। কারণ এগুলো তো মানুষেরই দান করা টাকা।

তিনি আরও বলেন, ‘করো'না চিকিৎসক ও হাসপাতা'লে সাহায্যের জন্য কোটি কোটি টাকা আসতে পারে ভা'রতের বিভিন্ন মন্দির-ম'সজিদ বা গুরুদোয়ারা থেকে। এগুলোর তহবিলে কোটি কোটি টাকা পড়ে আছে। সেটা বৈষ্ণদেবী হোক কিংবা তিরুপতির মন্দির। এগুলো তো মানুষেরই দান করা টাকা। এখন এত বড় সংকটে সেখান থেকেও অর্থের জোগান আসা উচিৎ।’