সবার সামনে কলেজছা'ত্রীকে চড়-থাপ্পড় বখাটের, এগিয়ে আসেনি কেউ

নিউজ ডেস্ক:পথচারীদের কোলাহলে ব্যস্ত থাকে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকার মাওনা চৌরাস্তা। ব্যস্ত এই এলাকায় বৃহস্পতিবার (০৯ জানুয়ারি) দুপুরে প্রকাশ্যে দুই কলেজছা'ত্রীকে মা'রধর করেছে এক বখাটে।

মা'রধরের বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে সবার নজরে এলেও প্রতিবাদ করেনি কেউ। এ সময় দুই ছা'ত্রীকে উ'দ্ধার করে টহল পু'লিশ। একই সঙ্গে বখাটেকে আ'ট'ক করা হয়। পরে বাবার জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেয় পু'লিশ।

স্থানীয় সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফিরছিল দুই কলেজছা'ত্রী। এ সময় তাদের পেছনে পেছনে যায় বখাটে যুবক। এরই মধ্যে মাওনা চৌরাস্তার শ্রীপুর সড়ক পার হয় দুই ছা'ত্রী। দুই ছা'ত্রীর পেছন থেকে চড়-থাপ্পড় মা'রতে শুরু করে বখাটে। তার সঙ্গে এসে যোগ দেয় আরও এক বখাটে। চড়-থাপ্পড়ে হতবিহ্বল হয়ে পড়ে দুই ছা'ত্রী। বিষয়টি দেখে এক পথচারী থামাতে গেলেও বখাটের চড়-থাপ্পড় চলতেই থাকে।

এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় দুই ছা'ত্রীকে ঘটনাস্থল থেকে উ'দ্ধার করে টহল পু'লিশ। পরে তারা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। সেই সঙ্গে অ'ভিযুক্ত বখাটেকে পু'লিশ হেফাজতে নেয়া হয়।

অ'ভিযুক্ত বখাটের বাবা জানিয়েছেন, ওই দুই ছা'ত্রী এবং তার ছে'লে একই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। ঘটনার পর থা'নায় গিয়ে বিস্তারিত শুনেছেন তিনি। ছে'লের এমন ঘটনায় লজ্জিত বখাটের বাবা।

শ্রীপুর থা'না পু'লিশের উপপরিদর্শক (এসআই) জহির রায়হান বলেন, প্রকাশ্যে দুই ছা'ত্রীকে মা'রধরের ঘটনায় এক যুবককে আ'ট'ক করা হয়। পু'লিশি হেফাজতে নিজের দোষ স্বীকার করে অনুতপ্ত ওই যুবক। কেউ কোনো অ'ভিযোগ না করায় তাকে স্বজনদের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর বারের আইনজীবী আসাদুল্লাহ বাদল বলেন, অ'ভিযুক্ত যুবককে আ'ট'কের পর স্বজনদের অনুরোধে ছেড়ে দিয়ে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে পু'লিশ। এতে এমন ধরনের অ'প'রাধ প্রবণতা সমাজে বৃদ্ধি পাবে। অ'ভিভাবকরা নিরাপত্তার অভাবে ওই ছা'ত্রীদের বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিতে পারেন। সেই সঙ্গে বাল্যবিয়ের প্রবণতা বৃদ্ধি পাবে। এসব ক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর আরও সচেতন ভূমিকা পালন করা উচিত।