যুক্তরাষ্ট্রে জলবায়ু নিয়ে বাংলাদেশী রেবেকার ল'ড়াই

গত সোমবার স্পেনের মাদ্রিদে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে এক সম্মেলনে মিলিত হয়েছিলেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা। গত কয়েক বছর ধরেই বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে আ'ন্দোলনে সক্রিয় হয়েছে যুব সমাজ। কিছুদিন আগে সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে নিউ ইয়র্কে জাতিসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের সময় জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরের সামনে বি'ক্ষোভ করেছে বিভিন্ন দেশের পরিবেশ আ'ন্দোলনকারীরা। এদের একটি বড় অংশ স্কুল শিক্ষার্থী।

ওই আ'ন্দোলনে বিশ্বব্যাপী আলোড়ন তুলেছিল সুইডেনের স্কুলছা'ত্রী গ্রেটা থুনবার্গ। পরিবেশ আ'ন্দোলকারীদের প্রতীকে পরিণত হয়েছিলোন গ্রেটা। ওই সমাবেশে অংশ নিয়ে নজর কেড়েছিল এক বাংলাদেশী শিক্ষার্থী। তার নাম রেবেকা শবনম।

মাদ্রিদে জলবায়ু সম্মেলন উপলক্ষে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা একটি প্রতিবেদন করেছে রেবেকা শবনমকে নিয়ে। যার শিরোনাম ‘জলবায়ু নিয়ে বাংলাদেশী-আমেরিকান তরুণীর ল'ড়াই’।

১৬ বছর বয়সী রেবেকা শবনম সেপ্টেম্বরের জলবায়ু পরিবর্তন রোধের আ'ন্দোলনে বেশ আ'লোচিত হয়েছিলেন। নিউ ইয়র্কে ২০ হাজার মানুষের ওই সমবেশে বক্তৃতা করেন রেবেকা। বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যম তার সাক্ষাৎকার নিয়েছে। জলবায়ু বিষয়ক সচেতনতা তৈরিতে তরুণদের আহ্বান জানান রেবেকা।

ওই সময় রেবেকা স্মৃ'তিচারণ করে বলেন, একবার ঢাকায় ব'ন্যার সময় আমা'র কাকা আমাকে পিঠে চড়িয়ে স্কুলে নিয়ে গিয়েছিলেন। রেবেকা বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। দেশটি জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে দারিদ্রতার সংযোগের উৎকৃষ্ট উদাহ'রণ। তিনি তার বক্তৃতায় জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে কিভাবে বাংলাদেশের মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে সেটি তুলে ধরেন।

নিউ ইয়র্কের একটি হাইস্কুলের শিক্ষার্থী রেবেকা পরে আলজাজিরাকে বলেছেন, আমি শুধু ভাবতাম এই বিশাল সমাবেশে কিভাবে বাংলাদেশের নাম তুলে ধরবো। যেটিকে শুধু ক্রিকে'টের জন্যই মানুষ চেনে। তবে আমা'র বক্তৃতার সময় সবাই চি'ৎকার ও করতালি দিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে।

একাদশ শ্রেণির ছা'ত্রী রেবেকা পরিবারের সাথে নিউ ইয়র্কে বসবাস করেন। ছয় বছর বয়সের সময় পরিবারের সাথে যুক্তরাষ্ট্র যান। নিউ ইয়র্কের ওই বক্তৃতায় রেবেকা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন শুরু পরিবেশগত বিষয় নয়। এটি একটি জরুরি মানবাধিকারের বিষয়ও।

রেবেকা শবনম বলেন, বাংলাদেশের নারী ও উদ্বাস্তু শিবিরে বসবাসরত রোহিঙ্গা উদ্বাস্তুদের জানাতে চাই যে, তাদের জীবন নিরাপদ করতে সারা বিশ্বের যুব সমাজ কিভাবে আ'ন্দোলন করছে।

মাদ্রিদের কোপ২৫ সম্মেলন উপলক্ষে তিনি আলজাজিরাকে বলেন, আম'রা চাই কোপ২৫ সম্মেলন শুধু তাপমাত্র বৃদ্ধির মতো হুমকি নিয়ে তথ্য সংগ্রহের মধ্যেই যেন সীমাবন্ধ না থাকে।