হবিগঞ্জে বিরল প্রজাতির লক্ষ্মীপেঁচা উ'দ্ধার

নিউজ ডেস্কঃ হবিগঞ্জ শহরে একটি বিরল প্রজাতির লক্ষ্মীপেঁচা উ'দ্ধার করা হয়েছে। পরে এটিকে বাংলাদেশ পরিবেশ আ'ন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জের তত্ত্বাবধানে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়। গতকাল শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে হবিগঞ্জ শহরের পুরাণ মুন্সেফ সড়কে কয়েকজন শি'শু-কি'শোর পেঁচাটিকে ধাওয়া দিলে সেটি ওই সড়কের ‘সারা ফ্যাশন’ এর ভেতর আশ্রয় নেয়। ওই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ কর্মী সিদ্দিকী' হারুন। তিনি বাপার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেলকে বিষয়টি জানালে সঙ্গে সঙ্গে বাপা নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল উপস্থিত হন। তোফাজ্জল সোহেল বন বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করলে বন বিভাগের একটি প্রতিনিধি দল এসে পেঁচাটি গ্রহণ করেন।

তোফাজ্জল সোহেল জানান, লক্ষ্মীপেঁচাটি দেখতে আর্কষণীয়। এ পাকি গাছের কোটরে, বন-জঙ্গল, দালানের ফাঁকফোকর কিংবা গাছগাছালির ঘনপাতার আড়ালে লুকিয়ে থাকে। নির্বিচারে বৃক্ষ উজাড়, জমিতে বিভিন্ন রাসায়নিক সার ও কী'টনাশক প্রয়োগ, শিকারিদের দৌরাত্ম্য, খাদ্যের অভাবসহ বিভিন্ন কারণে প্রকৃতি থেকে পেঁচার সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে।

শুক্রবার রাতেই বন বিভাগ লক্ষ্মীপেঁচাটিকে তাদের অফিস কমপ্লেক্সে অবমুক্ত করে। জে'লা বন কর্মক'র্তা বন্যপ্রা'ণী বিভাগ আব্দুল ওয়াদুদ জানান, এটি বিরল প্রজাতির। এদের দেখা পাওয়াই যায় না। পাখিটি ভ'য় পেয়েছিল। বন বিভাগে নিয়ে আসার পর এটি স্বাভাবিক হয়। পরে অফিস এলাকায় সেটিকে অবমুক্ত করা হয়। তখন পেঁচাটি উড়ে বড় একটি গাছে আশ্রয় নেয়।

তিনি আরও বলেন, যেকোনো বণ্য প্রা'ণী লোকালয়ে পাওয়া গেলে সেটিকে না মে'রে বন বিভাগকে খবর দিলে আম'রা সেগুলো বনে অবমুক্ত করব।