সিঙ্গাপুরে নানিয়াং টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিএমইএবিএস উদ্যোগে ক্যারিয়ার উন্নতি বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ওমর ফারুকী শিপন:কঠোর পরিশ্রম করেও অনেকসময় সফলতা অর্জন করা যায় না।একটানা খাটুনি করলেই যদি সফলতা পাওয়া যেত তাহলে দিনমজুর ও রিক্সাচালকরাই সবচেয়ে বেশী সফল হতো৷

আবার সিনিয়রদের তোষামোদ করেও তা করা সম্ভব নয়।সিনিয়রদের তোষামোদি করে সফলতা ও অর্থ উপার্জনের পথ পেলেও তা ক্ষনস্থায়ী।তাই সফলতার জন্য চাই মেধা,সার্টিফিকেট ও কঠোর পরিশ্রম৷

ক্যারিয়ারে কিভাবে সফলতা অর্জন করা যায় তার উপর “ক্যারিয়ার উন্নতি সেমিনারের আয়োজন করে সিঙ্গাপুরে ডিপ্লোমা মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং এসোসিয়েশন বাংলাদেশ সিঙ্গাপুর(ডিএমইএবিএস)।

গত ৪ই মে শনিবার নানিয়াং এক্সকিউটিভ সেন্টারে স্থানীয় সময় বিকেল ৭ টা থেকে শুরু হয়ে সেমিনার চলে রাত ১০ টা পর্যন্ত৷

সেমিনারে ওপেনিং প্রধানবক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রফেশনাল স্পিকার করপোরেট ট্রেইনার ও ট্রান্সফরম্যাশন কোচ মিস রাফিয়া সুলতানা। তিনি কর্মক্ষেত্রে কিভাবে ইতিবাচক সংস্কৃতি ছড়িয়ে দিয়ে সকলের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করা যায় উপর বিশদ আলোচনা করেন।

এরপর প্রফেশনাল প্রধানবক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন প্রফেশনাল কীনোট স্পিকার কোচ ও ট্রেইনার জনাব সীন অং৷ তার বক্তব্য’র বিষয় ছিল কিভাবে “গল্প” ইউস করে ইন্টারভিউতে জয়ী হওয়া যায়। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আমরা অনেকসময় ইন্টারভিউ বোর্ডের সামনে কাচুমাচু করি কোনকিছু গুছিয়ে বলতে পারি না। সব শংকা দূর করে কিভাবে আত্নবিশ্বাসের সহিত ইন্টারভিউ বোর্ডের সম্মুখে হাজির হওয়া যায় তার উপর বিশদ আলোচনা করেন।

এসময় উপস্থিত দর্শকদের মাঝে একজন বলেন, ক্যারিয়ার নিয়ে খুব দুশ্চিন্তায় ছিলাম কিন্তু আজকের আলোচনায় যোগদান করে উপকৃত হলাম৷ আজকের আলোচনা আমাকে সামনে এগিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা দিবে।

শাহ মোহাম্মদ সাইদুর রহমানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি প্রানবন্ত হয়ে উঠে।

প্রোগ্রাম আয়োজক কমিটির প্রধান কাজী মোহাম্মাদ আছাদউজ্জামান এর উদ্ভোধনী বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।পরিকল্পনা টিমের ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ কামাল হোসাইন এবং ওয়াহিদ্দুজ্জামানের সামগ্রিক প্রস্তুতিতে অনুষ্ঠান আরো স্বার্থক হয়ে উঠে। প্রফেশনাল ফটোগ্রাফি টীম লিডার ইঞ্জিনিয়ার সাইফুদ্দিন বলেন, এত সুন্দর, প্রাণবন্ত, কার্যকরী অনুষ্টান বাংলাদেশী কমিউনিটিতে কেউ করেছে বলে মনে পড়ে না। বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয়নে এ ধরণের অনুষ্ঠান মাইলফলক হিসেবে থাকবে। সমাপনী বক্তব্যে সংগঠনের প্রেসিডেন্ট আবু তাহের মিয়া উপস্থিত সকলকে অভিনন্দন জানিয়ে আগামী দিনে মেম্বারদের প্রফেশনাল উন্নয়নে ভবিষ্যৎ রূপরেখা উপস্থাপন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএমইএবিএসের প্রেসিডেন্ট জনাব মো: আবু তাহের মিয়া, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, জেনারেল সেক্রেটারি খোন্দকার ইফতেখারুল কবির, জয়েন্ট সেক্রেটারি মো: কামাল হোসেন, সহকারী জেনারেল সেক্রেটারি কাজী আসাদুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ হোসেন, সমাজ কল্যান সম্পাদক কাজী আরিফ মোহাম্মদ সায়মন, অরগানাইজিং সেক্রেটারি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, কালচারাল সেক্রেটারি মো: আব্দুল্লাহ আল আমিন ভিক্টর, ক্রীড়া সম্পাদক রাজিব মিয়া ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ আকরাম হোসেন এবং মো: রবিউল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন৷